এসইও বেসিক এ টু জেড

এসইও বেসিক টু অ্যাডভান্স – ফুল কোর্স SEO Bangla

এসইও বেসিক টু অ্যাডভান্স – ফুল কোর্স SEO Bangla

আজ থেকে আমি এসইও নিয়ে বিস্তারীত একটা সিরিজ আকারে আর্টিকেল লিখব। আমার এই সিরিজ যদি কেউ সঠিক ভাবে পড়ে এবং প্রেকটিস করে তবে আমি সতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে বলব আপনি একজন এসইও এক্সপার্ট হবেন।

অযথা কথা না বলে চলুন শুরু করি:-

এসইও কি?

এর ফুল মিনিং- সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। সংক্ষেপে বলাহয় এসইও। কন্টেন্টকে সার্চইঞ্জিন ফ্রেন্ডলি করে তোলাই এসইও এর কাজ। এই কন্টেন্ট হতেপারে- আর্টিকেল, ভিডিও, অডিও, ইমেইজ অথবা পিডিএফ ইত্যাদি। এসইও হচ্ছে সার্চইন্জিন গুলার কিছু নিয়ম কানুন। এই নিয়ম কানুন যে যত ভালো ভাবে ফলো করবে, সে সার্চ ইন্জিনে ততো সামনে থাকবে। আর যত বেশি সামনে থাকবেন ততোবেশি ট্রাফিক পাবেন। ধরেন আপনার কোন একটা ইনফরমেশন দরকার, আপনি গুগলে সেই ইনফরমেশন জানার জন্য কোন একটা কিওয়ার্ড লিখে সার্চ দিলেন। এখন গুগলে কয়েক হাজার রেজাল্ট দেখাবে। তবে এই রেজাল্ট কয়েক পেইজে অথবা কয়েক শত পেইজে দেখাবে। প্রতি পেইজে ১০টা করে রেজাল্ট দেখাবে। এখন আপনি কি প্রথম রেজাল্ট না দেখে ২য় পেইজে যাবেন? বেশির ভাগ মানুষ ১ম পেইজের প্রথম আর্টিকেল অথবা ২য় আর্টিকেল অথবা ৩য় আর্টিকেল এর ভিতরে তার কাঙ্খিত রেজাল্ট পেয়ে যায়। অত,এব আপনি যদি একটা আর্টিকেল লিখে ২য় অথবা ৩য় পেইজে থাকেন তাহলে আপনি তেমন ট্রাফিক পাবেন না। আপনার ট্রাফিক পেতে হলে ১ম পেইজের ১ম,২য় অথবা ৩য় রেজাল্টের মধ্যে থাকতে হবে। এখানে নিজের অবস্থান তৈরী করতে হলে আপনাকে কিছু নিয়ম মানতে হবে। এই নিয়ম গুলা মেনে কাজ করাই হচ্ছে এসইও।

এসইও কত প্রকার?

  • এসইও মুলত তিন প্রকার-
    • অন পেইজ এসইও
    • অফ পেইজ এসইও
    • ট্যাকনিকাল এসইও
  • এসইও এর কাজের ধরণ-
  • এই কাজ মুলত তিন ভাবে করা হয়-
    • ব্লাক হ্যাট এসইও
    • হোয়ইট হ্যাট এসইও
    • গ্রেহেট এসইও

এসইও এর গুরুত্ব কেমন?

এসইও এর গুরুত্ব বলার ভাষা আমার নাই। আপনি যদি অনলাইনে ব্যবসা শুরু করেন, তাহলে বুঝতে পারবেন এসইও এর গুরুত্ব কেমন। একটা ধারণা দেওয়ার জন্য বলি- ধরেণ আপনার একটা ঘড়ি বিক্রি করার ওয়েব সাইট আছে। এখন ঘড়ি বিক্রির জন্য আপনার ওয়েব সাইটে ট্রাফিক (ও্রয়েব সাইটের ভিজিটর) দরকার। আপনি যদি এই ট্রাফিকের জন্য সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বা সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং করেন তাহলে আপনার প্রতি ভিজিটরের জন্য 0.6 সেন্ট থেকে শুরু করে ৩ডলার পর্যন্ত খরচ হতে পারে। আর এই ট্রাফিক আপনি যত সময় ডলার খরচ করবেন ততোসময় পাবেন। ডলার খরচ বন্ধ করলে আপনি ট্রাফিক পাবেন না। ঠিক এই কাজ যদি এসইও এর মাধ্যমে করেন তাহলে আপনি লাইফটাইম ট্রাফিক পাবেন একদম ফ্রি। এবং এই ট্রাফিকে আপনার সেইল হবে তুলনামুলক বেশি। তাই আমরা এসইওকে বেশি ফোকাস করি। একটা বিষয় খেয়াল রাখতে হবে এসইও করলে সাথে সাথে রেজাল্ট পাবেন না। এসইও এর রেজাল্ট আসে স্লো কিন্তু দির্ঘস্থায়ী।

কেন এসইও করবেন?

কম খরচে ওয়েব সাইটে ট্রাফিক পাওয়ার জন্য এসইও এর বিকল্প নাই। এসইও এর খরচ কম কিন্তু রেজাল্ট বেশ ভালো।

এসইও শিখতে কত দিন সময় লাগবে?

এটা লির্ভর করে আপনার উপর আপনি কত দিন সময় নিচ্ছেন। আপনি একদিনে এসইও শিখতে পারবেন আবার তিন মাসে এসইও শিখতে পারবেন। তবে অভিজ্ঞ হতে হলে বেশ কিছু লাইভ প্রজেক্টে কাজ করতে হবে। এনালাইসিস করতে হবে আপনার কোন কন্টেন্ট রেংক করছে? কেন রেংক করছে? কি করলে রেংক করে। এই বিষয়গুলা নিয়ে যত বেশি রিসার্চ করবেন ততো অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবেন।

এসইও এক্সপার্ট এর ইনকাম কেমন?

এসইও করে অনেকে মাসে 50,000 ডলার এর উপরে ইনকাম করছে আবার অনেকেই 100 ডলার ইনকাম করছে। ইনকাম নির্ভর করে অভিজ্ঞতা, ধৈর্য এবং সময় দেওয়ার উপর। আপনারা আমার এই কোর্স ফলো করেন। আমি আপনাদের এসইও এক্সপার্ট হওয়ার রাস্তা দেখিয়ে দিব। গন্তব্যে পৌছানুর দায়িত্ব আপনার। চলবে…

ইফতেখার চেীধুরী

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *